গরমে ত্বকে জ্বালাপোড়া কেন হয়, করণীয়

May 25, 2017,11:03 pm, By Riyad Hossain

post image

জ্বালাপোড়া গরমে ত্বকের নিত্যসঙ্গী। গরমে পরিবেশের তাপমাত্রা অনেক ওঠানামা করে। এটি মানবদেহের স্বাভাবিক পিএইচ, তাপমাত্রা, হরমোন, এনজাইমের কার্যক্রমকে নষ্ট করে। এতে বিভিন্ন স্বাস্থ্যঝুঁকি হয়।

এ সময়ে আমাদের ত্বকে বিভিন্ন রকম পরিবর্তন ঘটে। এতে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয় শরীরের উপরিভাগ, অর্থাৎ ত্বক। কারণ, সূর্যের তাপ ত্বকের ওপরেই পড়ে। আর সূর্যের আলট্রাভায়োলেট রশ্মি সব সময় ত্বকের জন্য ক্ষতিকর। বিশেষ করে গরমের সময় তাপমাত্রা বেশি বেড়ে যাওয়ার কারণে অনেকের ত্বকে লালচে ভাব, জ্বালাপোড়া, চুলকানি ও ফোসকা হয়। তাই এই প্রচণ্ড গরমে ত্বকের চাই বিশেষ যত্ন।

ত্বকের জ্বালাপোড়া ঝুঁকিতে যাঁরা

১. ফর্সা ও কোমল ত্বকের অধিকারী মানুষ ত্বকের জ্বালাপোড়ার ঝুঁকিতে বেশি থাকেন। কারণ, সাদা চামড়াধারীদের মেলানিন পিগমেন্ট কম থাকে। গরমে এ ধরনের ত্বকের রোগ সহ্য করার ক্ষমতা কমে গিয়ে জ্বালাপোড়া তৈরি হয়। মেলানিন পিগমেন্ট কালো চামড়ায় বেশি থাকে। তাই এ ধরনের সমস্যা থেকে কালো চামড়ার মানুষ কিছুটা মুক্ত।

২. আগুনের কাছাকাছি কাজ করেন এমন কারখানার শ্রমিকরা এ ঝুঁকিতে থাকেন।

৩. প্রখর সূর্যালোকে যাঁরা বেশি কাজ করেন, তাঁরাও ত্বকের জ্বালাপোড়ার ঝুঁকিতে থাকেন।

৪. পানি ও তরল খাবার কম খেলে এ ধরনের সমস্যা হয়।

৫. যাঁদের বিভিন্ন চর্মরোগ ও অ্যালার্জি আছে, তাঁদের ত্বকে জ্বালাপোড়া বেশি হয়।

করণীয়

১. গরমের সময় ত্বক ও শরীর সুস্থ রাখতে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা বজায় রাখুন।

২. সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত সূর্যের রশ্মি এড়িয়ে চলুন। আর যদি ঘর থেকে বের হতেই হয়, তাহলে ভারি পোশাক এড়িয়ে গিয়ে সুতির পোশাক পরুন। সুতি কাপড় দিয়ে যথাসম্ভব মুখ ও শরীর ঢেকে বের হোন।

৩. রোদে বাইরে বের হওয়ার সময় সানব্লক বা সানস্ক্রিন লোশন বা ক্রিম ব্যবহার করুন। এ ক্ষেত্রে সান প্রটেক্টিভ ফ্যাক্টর বা এসপিএফ ৩০-এর বেশি মাত্রার ক্রিম ব্যবহার করুন। চামড়া যত নরম হবে, এসপিএফের নম্বর তত বাড়বে।

৪. এ ছাড়া মাথায় ক্যাপ বা টুপি ব্যবহার করতে পারেন।

৫. বাড়ির বাইরে থেকে এসেই হাত-পা-মুখ স্বাভাবিক পানিতে বা অল্প ঠান্ডা পানিতে ভালোভাবে ধুয়ে নিন।

৬. গরমে ত্বকের জ্বালাপোড়া কমাতে পানির কোনো বিকল্প নেই। মুখ পানি দিয়ে বারবার ধোন। এতে ত্বক পরিষ্কারও হবে এবং শীতল থাকবে। গরমে শরীর ও ত্বক সুস্থ রাখতে প্রচুর পানি, ফলমূল, তাজা ফলের রস, ডাবের পানি ইত্যাদি পান করুন। এতে শরীরের আর্দ্রতার ভারসাম্য বজায় থাকে এবং ত্বকের জ্বালাপোড়া ভাব কমে।

৭. এ ছাড়া পুষ্টিকর খাবার খান; ব্যায়াম করুন এবং পর্যাপ্ত ঘুমান। এসব কাজ ত্বক জ্বালাপোড়া কমানোর জন্য খুবই জরুরি।

লেখক : সহকারী অধ্যাপক, গণস্বাস্থ্য সমাজভিত্তিক মেডিকেল কলেজ, সাভার, ঢাকা।

Related articles

post image post image post image

©MyBlog.com

- 2017
Facebook Twitter LinkedIn GooglePlus